জাতীয়

অসৎ উদ্দ্যেশে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় দৈনিক শিক্ষার বিরুদ্ধে মামলার ঘোষণা শিক্ষক সমিতির

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির বিরুদ্ধে বানোয়াট ও উদ্দেশ্য মূলক মিথ্যা তথ্য সম্বলিত সংবাদ প্রকাশ করায় দৈনিক শিক্ষা ডটকম নামের অনিবন্ধিত শিক্ষা বিষয়ক অনলাইন নিউজ পোর্টালের সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান খান এর বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে  বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস)।

একই সাথে সারাদেশের জেলা উপজেলার শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আইনি নোটিশ  পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি।

সোমবার বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সভাপতি নজরুল ইসলাম রনি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত পাঁচ অক্টোবর বিশ্ব শিক্ষক দিবসে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণের দাবিতে মানববন্ধন ও শিক্ষা দিবস পালন করে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রিয় নেতৃবৃন্দ।

এই মানববন্ধন ও শিক্ষা দিবসের কর্মসূচীর “সরকারিকরণের দাবি নিয়ে বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপন” শিরোনামে সংবাদ পরিবেশ করে দৈনিক শিক্ষা ডটকম নামের অনিবন্ধিত একটি শিক্ষা বিষয়ক অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সংবাদে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতিকে বিএনপিপন্থী শিক্ষক সংগঠন হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

দৈনিক শিক্ষায় প্রকাশিত সংবাদে বিএনপন্থী উল্লেখ করে বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে।

এর প্রতিবাদে গত ৬ অক্টোবর বাংলাদেশে শিক্ষক সমিতির অফিসিয়াল প্যাডে সংগঠনটির সভাপতি নজরুল ইসলাম রনি সাক্ষরিত একটি প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হয় দৈনিক শিক্ষা অনলাইন নিউজ পোর্টালে।

প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করা হয়, গত ছয় অক্টোবর ২০২১ দৈনিক শিক্ষা ডটকমে প্রকাশিত “সরকারিকরণের দাবি নিয়ে বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপন” শিরোনামে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) কে বিএনপিপন্থী হিসেবে পরিচিত নামে অভিহিত করেছে।

এ ধরণের উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং ষড়যন্ত্র মূলক লেখার জন্য বাশিসের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ এবং তিব্র নিন্দা জানাচ্ছি। উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) মুজিব আদর্শে অনুপ্রাণিত এবং স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি যা বাশিসের মূল প্যাডের লেখা রয়েছে। বাশির এর পথ চলা দীর্ঘদিন থেকে এবং বাংলাদেশ শিক্ষ সমিতি (বাশিস) একটি অরাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠন।  দৈনিক শিক্ষার সংবাদ উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং বানোয়াট।

বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অর্জন ও সাফল্যকে তুলে ধরে মুজিব বর্ষের শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবি করে আসছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি। উল্লেখ্য যে, গত ৫ অক্টোবর ২০২১ বিশ্ব শিক্ষক দিবসে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাশিস মুজিবর্ষের শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ তথা বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা দর্শন বাস্তবায়নে এক শান্তিপূর্ণ মানবন্ধন ও আলোচনা  এবং পরিশেষে এক র‍্যালী করে।

অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার হীন মানসিকতায় বাশিসকে বিরূপ মন্তব্য করায় দেশব্যাপী শিক্ষক সমাজে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। ষড়যন্ত্র মূলক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত এই সংবাদটি প্রত্যাহার করার জন্য বাশিসের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে বলা হলো। নতুবা বাশিসের পক্ষকে দৈনিক শিক্ষার বিরুদ্ধে আইনই পদক্ষেপ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।”

এ বিষয়ে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বাশিস) এর সভাপতি নজরুল ইসলাম রনি বলেন, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি  প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শিক্ষকদের জাতীয়করণের দাবি নিয়ে রাজপথে রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অর্জন ও সাফল্যকে তুলে ধরে মুজিব বর্ষেই শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণের দাবি করে আসছে।

বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক ও পেশাজীবী একটি সংগঠন। অথচ দৈনিক শিক্ষা নামের একটা অনলাইন পোর্টাল শিক্ষক সমিতিকে বিএনপিপন্থী হিসেবে পরিচিত করানোর জন্য প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। আমরা তাদেরকে বিষয়টি মুছে ফেলতে প্রতিবাদ লিপি পাঠিয়েছি। তার কোন ধরণের পদক্ষেপ না নেওয়ায় আমাদের  সংগঠনের পক্ষ থেকে পোর্টালটির বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

উল্লেখ্য, শিক্ষা বিষয়ক অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল দৈনিক শিক্ষা শুরু থেকেই বিভিন্ন প্রোপাগাণ্ডা  ছড়ানোর জন্য আলোচিত সমালোচিত হয়েছে।

২০২০ সালের ২১ জুন রাত ১টার সময়  সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী  সাহার খাতুন করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন “সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী সাহারা খাতুন আর নেই ; প্রধানমন্ত্রীর শোক” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে গুজোব ছড়ায় দৈনিক শিক্ষা। সাহারা খাতুন জীবিত ও চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তাকে শুধু মৃত বলে ঘোষণা করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি পোর্টালটি প্রধানমন্ত্রীর শোক জানানোর কোথাও উল্লেখ করে।

এ নিয়ে দেশব্যাপী ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে। এছাড়াও মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন তার বিরুদ্ধে প্রোপ্যাগান্ডা ছড়ানোর অভিযোগে আইসিটি আইনে মামলা করলে গ্রেপ্তার হন দৈনিক শিক্ষার সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান খান। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভুয়া প্রজ্ঞাপন বানিয়ে প্রচার করার অভিযোগও আছে পোর্টারলটির বিরুদ্ধে।