জাতীয়দেশজুড়েস্বাস্হ্য

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে গণটিকা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে আগামী মঙ্গলবার থেকে আবারও সারা দেশে গণটিকা কার্যক্রম চালু হচ্ছে। আজ রোববার সকালে পটুয়াখালি মেডিকেল কলেজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. খুরশীদ আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডা. খুরশীদ আলম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মঙ্গলবার থেকে আবারও শুরু হচ্ছে এলাকাভিত্তিক গণটিকা কার্যক্রম। তিনি বলেন, টিকা ক্যাম্পেইনে একদিনেই ৮০ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হবে। এ কর্মসূচি নিয়ে দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক বিস্তারিত ব্রিফ করবেন। সেখানে তিনি বিস্তারিত পরিকল্পনার কথা তুলে ধরবেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, এ মাসেই আবারও বড় পরিসরে সারা দেশে ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পেইন করা হবে। ক্যাম্পেইনের আওতায় এক কোটিরও বেশি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। একই সঙ্গে বর্তমান টিকাদান কর্মসূচিও চলমান থাকবে।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘গণহারে শুরু হতে যাওয়া এই টিকা কর্মসূচিকে আমরা গণটিকা বলছি না। তবে ব্যাপক আকারে আমরা এই টিকা দেবো টিকা ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ১ কোটিসহ প্রতি মাসে নিয়মিত প্রায় ২ কোটি টিকা দেওয়া হবে।’

কোন টিকা দেওয়া হবে জানতে চাইলে ডা. খুরশীদ আলম বলেন, সারা দেশে এবারও সিনোফার্মের টিকাই দেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে আগে সিটি করপোরেশন এলাকাগুলোতে মডার্নার টিকা দেওয়া হলেও এবার সেগুলোতে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে।

টিকার মজুদ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, ‘আমাদের হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ টিকা মজুদ আছে এবং আমরা সামনের দিনগুলোতে প্রয়োজনীয় টিকা পাওয়ার উৎস নিশ্চিত করেছি।’

স্পট রেজিস্ট্রেশনে ষাটোর্ধ্বদের টিকা প্রয়োগের কথা জানিয়ে ডা. খুরশীদ আলম বলেন, সপ্তাহের নির্দিষ্ট একদিন নিবন্ধিত বা অনিবন্ধিত ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা দেখতে পেয়েছি ষাটোর্ধ্ব জনসংখ্যা গোষ্ঠী বেশিরভাগ ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমিত হয়েছে এবং তাদের মধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। এটা মাথায় রেখেই আমরা নতুন টিকাদান পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা টিকা দেওয়ার সময় মাথায় রাখব যারা বয়স্ক তারা যেন অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই টিকা পান।’

এর আগে গত ৭ আগস্ট থেকে দেশে শুরু হয়েছিল গণটিকা কার্যক্রম। ৯ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রদানের মাধ্যমে প্রথম দফার গণটিকা কার্যক্রম শেষ হয়েছিল। এরপর আবারও গণটিকা কার্যক্রম চালুর কথা বলা হলেও নির্দিষ্ট দিনক্ষণ জানায়নি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

উল্লেখ্য, দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৫ কোটি ৪৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৪ কোটি ২ লাখ ৩১ হাজার ৫৬৯ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকার মজুদ আছে ১ কোটি ৪৩ লাখ ৫৩ হাজার ৫১১ ডোজ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন ২ কোটি ৪১ লাখ ৯৭ হাজার ৫৯৮ জন। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৬০ লাখ ৩৩ হাজার ৯৭১। গতকাল শনিবার দুই ডোজ মিলিয়ে দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ৮০ হাজার ডোজ টিকা।