আন্তর্জাতিকজাতীয়

ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশের নাগরিক? বিজেপির জবাব, সব হিন্দুই ভারতীয়

তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত হয়ে যোগ দেন বিজেপিতে, এরপর প্রথমবার ভোটে দাঁড়িয়েই সাংসদ নির্বাচিত হন। এখন তিনি ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার কনিষ্ঠতম সদস্যও, দায়িত্ব পালন করছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হিসেবে। তবে কোচবিহারের নিশীথ প্রমাণিক কি ভারতের নাগরিক? বিস্ফোরক দাবি করলেন আসাম থেকে মনোনীত রাজ্যসভার সাংসদ, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি রিপন ভোরা। চিঠি লিখলেন প্রধানমন্ত্রীকে।

শুক্রবার লেখা সেই চিঠি সংযুক্ত করে আবার টুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের দুই মন্ত্রী এবং তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ইন্দ্রনীল সেন, ব্রাত্য বসু। তাদের মন্তব্য, কোনও বিদেশি নাগরিক দেশের মন্ত্রী হলে ভারতের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে। এর পাল্টা জবাব দিয়েছে বিজেপি। তাদের বক্তব্য, কুৎসা না রটিয়ে প্রমাণ দিক তৃণমূল। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসু এ বিষয়ে বলেছেন, তর্কের খাতিরে মেনে নিলেও এটা তো সত্যি যে নিশীথ একজন হিন্দু। আর বিজেপির কাছে সব হিন্দুই ভারতীয়।

কি ছিল সেই চিঠিতে?

রিপুন বোরা মোদীকে পাঠানো চিঠিটি টুইট করেছেন। সেখানে তিনি দাবি করেছেন, নিশীথ বাংলাদেশের পলাশবাড়ির হরিনাথপুরের বাসিন্দা।

ভারতে কম্পিউটার নিয়ে পড়াশোনা করার নামে এসে কোচবিহারে থেকে যান। যে নথি নিশীথ দেখিয়ে নিজেকে কোচবিহারের বাসিন্দা বলে দাবি করেন সেটাও ভুয়া।

উল্লেখ্য, ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পরিষদে সম্প্রতি রদবদল এনেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। নতুন মন্ত্রীদের মধ্যে স্থান পান বিজেপি এমপি নিশীথ প্রামাণিক। তাকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু, শপথ গ্রহণের পরপরই তাকে নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। দেশের নবনিযুক্ত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশের নাগরিক এমনই গুরুতর অভিযোগ করছে বিরোধী শিবির।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা, জি নিউজ ও এই সময়।