বিনোদন

পরিমনিকে ৪ ঘন্টা জেরা

সাভার বোট ক্লাবে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে   খোঁজ নিতে গতকাল দুপুর আড়াইটায় সাভার মডেল থানায় এসেছিলেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। প্রায় সাড়ে ৪ ঘণ্টা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথোপকথন শেষে সন্ধ্যা ৭টার দিকে থানা থেকে বের হয়ে যান। এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পরীমনি বলেন, আসলে মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে খোঁজ নিতেই আমি সাভার মডেল থানায় এসেছি। যদিও আমার আরও আগে আসার কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থ থাকার কারণে একটু দেরিতে আসা হলো। তিনি সাংবাদিকদের তার পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, সবাই আমাকে অনেক সাপোর্ট দিয়েছে। আমি খুব খুশি। মিডিয়ার সহযোগিতার কারণেই পুলিশ মামলার আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করেছে এবং রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

তিনি আরও বলেন, আমি সাভার মডেল থানায় মামলার অগ্রগতি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এখানে খাওয়া-দাওয়া করেছি। এ ছাড়া দীর্ঘক্ষণ থানায় অবস্থানের বিষয়ে তিনি বলেন, ঘটনার রাতের সকল কথা আমাকে খুলে বলতে হয়েছে। মামলার স্বার্থে তদন্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে লম্বা সময় কথোপকথনের মাধ্যমে সেদিনের বিষয়গুলো তুলে ধরেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

গতকাল দুপুর আড়াইটার দিকে পরীমনি একটি সাদা প্রাইভেটকারে সাভার মডেল থানায় আসেন। পরে তিনি ঢাকা জেলা উত্তরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহিল কাফির কক্ষে প্রবেশ করেন। এর পরপরই সাভার মডেল থানায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয় এবং মূল ফটক আটকে দিয়ে সাংবাদিক প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার পরিদর্শক কাজী মাইনুল ইসলাম জানান, পরীমনি সাভার থানায় এসেছেন। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ই জুন নাসির ও অমি ছাড়াও অজ্ঞাতনামা আরও চারজনের বিরুদ্ধে সাভার থানায় মামলা করেন পরীমনি। ওই মামলায় গত ২৩শে জুন আসামি নাসির ইউ আহমেদ ও অমিকে ৫ দিনের রিমান্ডে সাভার মডেল থানায় আনা হয়।