তথ্য প্রযুক্তি

পরিবর্তন আসছে হোয়াটসঅ্যাপে

ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচারে উল্লেখযোগ্য একটি পরিবর্তন আনছে হোয়াটসঅ্যাপ। এই পরিবর্তনের ফলে ফিচারটি ব্যবহারের পরিসর আরও বাড়বে। ওয়াবেটাইনফোর এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ হলো এমন একটি ফিচার যার সাহায্যে পাঠানো মেসেজ ৭ দিন পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিলিট হয়ে যায়।

প্রত্যেকটি আলাদা চ্যাটে এই ফিচার ব্যবহার করতে পারেন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা। আর গ্রুপের ক্ষেত্রে শুধু অ্যাডমিনরা এই ফিচার ব্যবহার করে মেসেজ পাঠাতে পারেন।

হোয়াটসঅ্যাপের সব ফিচারের খোঁজ রাখে এমন সাইট ওয়াবেটাইনফোর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচারে পরিবর্তন আসছে।

এই পরিবর্তনের ফলে শুধু গ্রুপ অ্যাডমিনরা নয়, গ্রুপের সব সদস্য ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার ব্যবহার করে মেসেজ পাঠাতে পারবেন। অর্থাৎ, এই ফিচারটি এখন সবার ব্যবহারের সুযোগ তৈরি হবে।

অবশ্য গ্রুপের সদস্যদের ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার ব্যবহার করে মেসেজ পাঠানোর জন্য গ্রুপ অ্যাডমিনদের অনুমতি লাগবে।

ওয়াবেটাইনফোর শেয়ার করা একটি স্ক্রিনশটে দেখা যায়, ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচারের সেটিংসে দুটি অপশন রয়েছে। এর মধ্যে একটি ‘অল পার্টিসিপেন্টস’ এবং অন্যটি ‘অনলি অ্যাডমিনস’।

গ্রুপে অল পার্টিসিপেন্টস অপশনটি চালু থাকলেই কেবল গ্রুপ সদস্যরা ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার ব্যবহার করে মেসেজ পাঠাতে পারবেন।

এদিকে ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচারটি সময় নিয়েও হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ কাজ করছে বলে শোনা যাচ্ছে। বর্তমানে ‘ডিসঅ্যাপিয়ারিং মেসেজেস’ ফিচার ব্যবহার করে পাঠানো মেসেজ ৭ দিনের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডিলিট হয়ে যায়। তবে মেসেজ ডিলিট হয়ে যাওয়ার সময় সাতদিন থেকে কমিয়ে ২৪ ঘণ্টায় নিয়ে আসা হতে পারে।