আন্তর্জাতিকজাতীয়

বাইডেন-হ্যারিসের প্রথম টুইট

শপথ নেয়ার পর প্রথম টুইট বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, আমেরিকার পরিবারগুলোর জন্য দ্রুত পরিত্রাণের পদক্ষেপ নেয়া হবে।  যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের টুইটবার্তা গত চার বছর তাড়া করেছে আমেরিকার জনগণকে ।  প্রেসিডেন্ট বাইডেন তার প্রথম টুইট বার্তায় বলেছেন, এমন না যে সংকট মোকাবেলা করছি। সংকট মোকাবেলার জন্য নষ্ট করার সময় তার হাতে নেই উল্লেখ করে বাইডেন বলেছেন, এ কারণেই আমি ওভাল অফিসে গিয়ে সরাসরি কাজে যোগ দিচ্ছি। বাইডেন বলেছেন, আমেরিকার পরিবারগুলোর জন্য দ্রুত পদক্ষেপের মাধ্যমে পরিত্রাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শপথ গ্রহণের পর প্রথম টুইট বার্তায় প্রথম নারী ভাইস  প্রেসিডেন্ট  কমালা হ্যারিস বলেছেন, তিনি সেবার জন্য প্রস্তুত।

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সময় থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার মার্কিন প্রেসিডেন্টের সংযোগের অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠে। ট্রাম্প সংবাদ সম্মেলন করার বদলে দিনে কয়েক দফা টুইট করে তার বার্তা প্রদান করে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন।

ক্ষমতার শেষ দিকে এসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাথে তার সম্পর্ক ফিকে হয়ে ওঠে। ভুয়া বার্তা প্রচারণার বিরুদ্ধে অবস্থান নেয় টুইটার , ফেসবুক সহ অন্যান্য সামাজিক মাধ্যম। টুইটার ট্রাম্পের ব্যক্তিগত একাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেয়।
প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় হোয়াইট হাউসের সরকারী একাউন্টটিও যথেচ্ছ ব্যবহার করেছেন ট্রাম্প। নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর সরকারী টুইটার একাউন্টটি সরাসরি  জো বাইডেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমালা হ্যারিসের নামে স্ব স্ব একাউন্ট সক্রিয় হয়ে ওঠে ।