পটিয়ার খবরপ্রিয় চট্রগ্রাম

পটিয়া- আনোয়ারা রোডের পাশে পটিয়া পৌরসভার গাছ কেটেছে সওজ


পটিয়ায় পৌরসভার অর্থায়নে লাগানো বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) কর্তৃপক্ষ কেটে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেেছ ।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে স্ক্যাবেটের দিয়ে ঝাউ, মেহগনি, জাম, গামারিসহ বিভিন্ন প্রজাতির অন্তত ৫০টি গাছ কেটে নেওয়া হয়। এ সুযোগে স্থানীয় লোকজন হরিলুটের মত গাছের ডালপালা নিয়ে যায়। সওজ কর্তৃপক্ষ পটিয়া-আনোয়ারা সড়ক প্রস্থতকরনের সময় এসব গাছ কেটে ফেলে। খবর পেয়ে পটিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোফরান রানা গিয়ে গাছ পৌরসভার দাবি করে মেয়রকে অবহিত করেন।

পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা মো. বাচাসহ স্থানীয় কিছু যুবক গাছ ও ডালপালা কেটে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন।
জানা গেছে, সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) দোহাজারীর অধীনে পটিয়া- আনোয়ারা সড়ক প্রস্থতকরণ কাজ চলছে। পৌরসভার লাগানো গাছ কোন অনুমতি ছাড়া বৃহস্পতিবার সকাল থেকে স্ক্যাবেটর দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির কাটা ফেলে। এতে অন্তত ৫০টি গাছ রয়েছে।

কেটে ফেলা গাছ নিয়ে পৌরসভার কাউন্সিলর গোফরান রানা ও কাউন্সিলর শফিকুল ইসলামের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে। কাউন্সিলর গোফরান দাবি করেন কেটে ফেলা গাছ পৌরসভার ও কাউন্সিলর শফি দাবি করেন এগুলো সওজের গাছ।

৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোফরান রানা জানিয়েছেন, রাস্তা প্রশস্তকরনের সুযোগে পটিয়া পৌরসভার অনুমতি ছাড়া অন্তত ৫০টি গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। বিষয়টি পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদকে জানানো হলেও তিনি কোন পদক্ষেপ নেননি।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ দোহাজারীর নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ জানিয়েছেন, পটিয়া- আনোয়ারা সড়ক প্রশস্ত করনের কাজ চলছে। যার কারণ রাস্তার পাশে থাকা গাছ কাটা হয়েছে। তবে যাদের জায়গা রয়েছে তারাই নিজেদের গাছ নিজেরাই নিয়ে যান। সওজ কর্তৃপক্ষ বর্ধিত প্রশস্ত রাস্তার ৩ ফুট সরকারিভাবে অধিগ্রহণ করা হয়নি। ফলে সংশ্লিষ্ট জায়গার মালিকরাই গাছের প্রকৃত মালিক।