দেশজুড়েপটিয়ার খবরপ্রিয় চট্রগ্রাম

পটিয়ার ইউএনও নোয়াখালী সদরে বদলী

পটিয়া নিউজ : ঈদের ছুটিতে পটিয়ার ইউএনও রদবদলের আদেশ জারী করেছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়।

বৃহস্পতিবার এক অফিস আদেশে চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলার বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা জাহান উপমাকে নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলায় এবং কোম্পানিগঞ্জের ইউএনও ফয়সাল আহমদকে পটিয়ায় বদলি করা হয়।
ফারহানা জাহান উপমা মাত্র ৬ মাস

ফারহানা জাহান উপমা চলতি বছরের ফেব্রুয়ারীতে পটিয়ায় যোগদান করেন। এর কয়েকদিন পরই বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনা মহামারি দেখা দেয়। এসময় তিনি লকডাউন কার্যকর, ত্রাণ তৎপরতা, চিকিৎসা সেবা নিয়ে দিনরাত কাজ করে পটিয়াবাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হন।

একজন দক্ষ ও পরিশ্রমীী কর্মকর্তা হিসেবে তার সুনাম ছড়িয়ে পড়ে। তার আকস্মিক বদলির খবরে এলাকার লোকজন হতাশা প্রকাশ করলেও ইউএনও ফারহানা জাহান উপমা জানিয়েছেন পারিবারিক ও ব্যক্তিগত কারণে তিনি বদলি হয়েছেন।

এদিকে বিভিন্ন অভিযোগ এনে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফয়সাল আহমেদকে প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে আসছিল ছাত্রলীগ।

উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে উপজেলা, পৌরসভা ও সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগের এক জরুরি সভায় এ আল্টিমেটাম দেয়া হয়। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিজাম উদ্দিন মুন্না অভিযোগ তুলে বলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল আহমেদের বিরুদ্ধে ম্যাজিষ্ট্রেসি ক্ষমতা অপব্যবহার করাসহ ছাত্রলীগ কর্মীদেরকে অপমান ও খারাপ আচরণ, স্বেচ্ছাচারিতা, দায়িত্বে অবহেলা, দুনীতির অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ, বসুরহাট পৌরসভা ছাত্রলীগ ও সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ যৌথ সিন্ধান্তে আগামী রোববারের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল আহমেদকে প্রত্যাহার না করলে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করে ছাত্রলীগ । এআন্দোলনের মধ্যেই বদলীর ঘটনা ঘটলো।  

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল আহমেদ বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি অত্র উপজেলায় কর্মকালীন সময়ে সরকারের সকল নির্দেশ যথাযথ ভাবে পালন করেছি।