অন্যান্য সংবাদআন্তর্জাতিকক্যারিয়ারজাতীয়

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন ভারতীয় বাঙালিসহ ৩ জন

২০১৯ সালে অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছেন যৌথভাবে তিনজন। তারা হলেন- ভারতীয় নাগরিক অভিজিৎ ব্যানার্জি, ফরাসি নাগরিক এস্থার দুফলো এবং মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার।

বাংলাদেশ সময় সোমবার (১৪) বিকেল সাড়ে ৩টায় রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করেন।

অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্র্য বিমোচনে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ যৌথভাবে তাদের তিনজনকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া দ্বিতীয় বাঙালি হলেন অভিজিৎ ব্যানার্জি। ১৯৬১ সালে ভারতের মুম্বাই শহরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ১৯৮৮ সালে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন অভিজিৎ। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে (এমআইটি) অধ্যাপনা করছেন।

অন্যদিকে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া দ্বিতীয় নারী হচ্ছেন এস্থার দুফলো। তিনি অপর নোবেল বিজয়ী অভিজিৎ ব্যানার্জির স্ত্রী। ১৯৭২ সালে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে জন্মগ্রহণ করেন এই অর্থনীতিবিদ। ১৯৯৯ সালে এমআইটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন দুফলো। বর্তমানে এমআইটিতেই অধ্যাপনা করছেন। এর আগে ২০০৯ সালে অর্থনীতিতে প্রথম নারী হিসেবে নোবেল পান অ্যালিনর অস্ট্রম।

অন্যদিকে এ বছর অভিজিৎ-দুফলো দম্পতির সঙ্গে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া আরেকজন হলেন মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার। তিনি ১৯৬৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯২ সালে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি শেষ করেন এই অর্থনীতিবিদ। বর্তমানে হার্ভার্ডেই অধ্যাপনা করছেন।

এবার নোবেল পুরস্কারের ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার (প্রায় আট কোটি টাকা) ভাগ করে নেবেন তারা।

এর আগে সোমবার (৭ অক্টোবর) চিকিৎসাবিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন দুই মার্কিন ও এক ব্রিটিশ বিজ্ঞানী। তারা হলেন- যুক্তরাষ্ট্রের উইলিয়াম কায়েলিন জেআর ও গ্রেগ এল. সিমেনজা এবং ব্রিটেনের স্যার পিটার  জে. র‌্যাটক্লিফ।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) বিকেলে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এ বিভাগে এবার যৌথভাবে নোবেল জিতেছেন জেমস পিবলস, মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ। এর মধ্যে জেমস পিবলস পেয়েছেন পুরস্কারটির অর্ধেক। আর বাকি অর্ধেক পেয়েছেন মিশেল মেয়র এবং দিদিয়ের কেলোজ; অর্থাৎ চার ভাগের এক ভাগ করে।

বুধবার (৯ অক্টোবর) রসায়নে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে দ্য রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস। এ বছর যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তিন বিজ্ঞানী। তারা হলেন জন বি. গুডএনাফ, এম. স্ট্যানলি হুইটিংহাম ও আকিরা ইয়োশিনো। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় তাদের এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (৯ অক্টোবর) একসঙ্গে দুই বছরের সাহিত্যে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে নোবেল কমিটি। এ বছর বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক এ পুরস্কার পেয়েছেন অস্ট্রিয়ান উপন্যাসিক, নাট্যকার ও অনুবাদক পিটার হান্ডকে। অন্যদিকে ২০১৮ সালের জন্য নোবেল পেয়েছেন পোল্যান্ডের লেখক, অধিকারকর্মী ও বুদ্ধিজীবী ওলগা তুকারজুক। বিতর্কের কারণে গত বছর এ বিভাগে পুরস্কার স্থগিত রাখা হয়।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় ঘোষণা করা হয়েছে শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম। এ বছর বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক এ পুরস্কার পেয়েছেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ (৪৩)।

সবশেষ আজ (সোমবার) অর্থনীতিতে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হলো। যার মাধ্যমে শেষ হলো এ বছরের নোবেল পুরস্কার বিতরণ।

নোবেল পুরস্কারকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পদক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ১৯০১ সাল থেকে নিয়মিত নোবেল পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসা, পদার্থ, রসায়ন, সাহিত্য, শান্তি ও অর্থনীতি- এ ছয়টি খাতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করে আন্তর্জাতিক নোবেল কমিটি।