অন্যান্য সংবাদআন্তর্জাতিকজাতীয়

শেষ মুহূর্তে হারিয়ে গেল চন্দ্রযান-২, ভারতের স্বপ্নভঙ্গ

চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণের কথা ছিল চন্দ্রযান-২ এর। তবে চাঁদে অবতরণের মাত্র কয়েক সেকেন্ড আগেই ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ভারতীয় এই মহাকাশযানের। গতকাল শুক্রবার রাত ১টা ৫৫ মিনিটের পর এটি নিখোঁজ হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, চন্দ্রযান-২ এর অবতরণ কন্ট্রোল রুমে বসে লাইভ দেখছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র (ইসরো) জানিয়েছে, আগে থেকে গতকাল শুক্রবার রাত ১টা ৪০ মিনিট থেকে ১টা ৫৫ মিনিটকে ‘দুশ্চিন্তার মুহূর্ত’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল। একেবারে শেষ মুহূর্তেই এটি ল্যান্ডার থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে বলে জানান তারা। 

ইসরোর বিজ্ঞানীরা নরেন্দ্র মোদিকে বিস্তারিত তুলে ধরার পর তিনি বিজ্ঞানীদের উদ্দেশে বলেন, ‘এটা জীবনের উত্থান ও পতন। এটা কম কৃতিত্ব নয়। আমি আপনাদের অভিনন্দন জানাই। আপনারা সবাই দেশ, বিজ্ঞান ও মানুষের জন্য দারুণ কাজ করেছেন, সব রকমভাবে আমি আপনাদের সঙ্গে রয়েছি, সাহসের সঙ্গে এগিয়ে চলুন।’

এর আগে গতকাল শুক্রবার রাত ১টা ৩০ মিনিট থেকে ২টা ৩০ মিনিটের মধ্যবর্তী  সময়ে মূল অরবিট থেকে আলাদা হয়ে যায় ল্যান্ডার বিক্রম। এর পরেই শুরু হয় সেই ‘দুশ্চিন্তার মুহূর্ত’। চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ২ দশমিক ১ কিলোমিটার দূরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এটি।

ইসরোর প্রধান কে. শিবান বলেন, ‘বিক্রম ল্যান্ডার ছিল পরিকল্পিত এবং ২ দশমিক ১ কিলোমিটার পর্যন্ত স্বাভাবিক লাগছিল। পরবর্তী সময়ে পৃষ্ঠের সঙ্গে ল্যান্ডারের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। সমস্ত তথ্য বিশ্লেষণ করা হচ্ছে’।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আজ  শনিবার ভোর রাতে ৫টা ৩০ মিনিট থেকে ৬টা ৩০ মিনিটের মধ্যে চন্দ্রযান-২ থেকে বেরিয়ে পড়ার ছিল এর রোভারের। ১৪ দিন ধরে সেটির চাঁদে বরফ কণার খোঁজ ছাড়াও খনিজ সম্পদের খোঁজ করার ছিল। আর এ ১৪ দিনে রোভারটির চাঁদ থেকে ছবি পাঠানোর কথা ছিল।

চন্দ্রযান-২ সফলভাবে অবতরণ করতে পারলে ভারত বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে চাঁদে যাওয়ার গৌরব অর্জন করতে পারত। এর আগে চাঁদে অবতরণ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ও চীন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জুলাই অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে উৎক্ষেপণ করা হয় চন্দ্রযান-২।  তার এক সপ্তাহ আগে অবতরণের ৫৬ মিনিটের মাথায় প্রথমবারের উৎক্ষেপণ বাতিল হয়। দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় মাত্র ১ মিনিটেই এটিকে সফলভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়।