জাতীয়দেশজুড়ে

উত্তরার অস্ত্রধারী কিশোর গ্যাং র‌্যাবের জালে

বিকাল হলেই একসঙ্গে খেলার মাঠে, রাস্তার পাশে মিলিত হয় তারা। পুরো উত্তরার নিয়ন্ত্রণ নিতে তারা বদ্ধপরিকর। আচার-আচরণে কিশোর বয়সকে হার মানিয়ে অন্ধকার জগতে পা দিয়েছে তারা। প্রকাশ্যে সিগারেট টানা, অকথ্য ভাষায় গালি। উচ্চ শব্দে গান। কখনও কখনও বাইক-গাড়ি নিয়ে গতির প্রতিযোগিতায় নামে তারা। এ এক ভয়ঙ্কর কিশোর গ্যাং। বস্তি থেকে শুরু করে বিত্তশালী পরিবারের বখে যাওয়া কিশোররা এই গ্যাংয়ের সদস্য।

রাজধানীর তুরাগের বাউনিয়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে দুটি শর্ট গান, চার রাউন্ড কার্তুজ, একটি চাইনিজ কুড়াল ও তিনটি ধারালো অস্ত্র জব্দ করা হয়। র‌্যাব জানিয়েছে, এই কিশোর গ্যাংটি এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য সংঘর্ষ, চুরি, ছিনতাই, দ্রুত গতিতে গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালানো থেকে শুরু করে নানা অপকর্ম করে যাচ্ছিলো। ‘নিউ নাইন স্টার’ নামে এই কিশোর গ্যাংটি উত্তরা এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করছিলো। পূর্বে নাইট স্টার নামে তাদের একটি গ্রুপ ছিলো। ২০১৭ সালে উত্তরায় এই গ্যাং আধিপত্যের শিকার হয়ে নিহত হয় কিশোর আদনান। আদনান হত্যায় নাইন স্টার গ্রুপের সংশ্লিষ্টতা দীর্ঘদিন পর নতুন নামে সংগঠিত হচ্ছিলো এই গ্রুপের সদস্যরা।

গ্রেপ্তারকৃত গ্যাং গ্রুপের সদস্যদের দুই-একজন ছাড়া প্রায় সবাই কিশোর। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, তুরাগের দলিপাড়ার হাবিবুর রহমান দাড়িয়া (৩০), একই এলাকার ফয়সাল আহমেদ (১৭), রাকিবুল হাসান (১৬), মো. রমজান আলী (১৭), মো. বাবু মিয়া (১৭), মো. নজরুল ইসলাম (২৭), মো. শাহীন হাওলাদার (১৫), তুহিন ইসলাম (১৫), মো. মাহমুদ হীরা (১৫), মো. রনি ইসলাম (১৫) ও মো. সাগর হোসেন (১৬)।